নতুন খবর দিলেন শাবনূর

বিনোদন ডেস্ক:-

ঢাকাই চলচ্চিত্রের অসংখ্য হিট-সুপারহিট ছবির জনপ্রিয় নায়িকা শাবনূর। সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কিছু মানুষ তার মৃত্যুর গুজব ছড়ায়। এ ঘটনায় স্বাভাবিকভাবেই ক্ষিপ্ত হন শাবনূর ও তার পরিবারের সদস্যরা। বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ায় আছেন শাবনূর। সেখানকার নাগরিকত্বও পেয়েছেন তিনি। একমাত্র ছেলে আইজান ও পরিবার নিয়ে বেশ ভালো সময় কাটছে তার। সেখান থেকে মুঠোফোনে তিনি মানবজমিনকে জানান তার বর্তমান ব্যস্ততার কথা। শাবনূর গতকাল বলেন, আমি ভালো আছি।

ছেলে আইজানকে স্কুল থেকে আনা-নেওয়া, খাওয়ানো, ব্যাগ গুছিয়ে দেওয়া এসব করতে করতে আমার দিন শেষ হয়ে যায়। তবে এসব কাজ আমি খুবই উপভোগ করি। আইজান অনেক চঞ্চল স্বভাবের। তাকে সামলাতে একটু বেগ পেতে হয়। তবে এত কিছুর মধ্যেও এখানে আমাকে নিয়ে একটা নতুন খবর আছে। আর তা হচ্ছে-নাচের ক্লাসে ভর্তি হয়েছি আমি। আমার বোন ঝুমুরের সঙ্গে সেই ক্লাসে যাই। আমি এখানে ‘জুম্বা’ ক্লাস করছি। ‘জুম্বা’ এক ধরনের বিশেষ নাচ। এসব করেই দিন কেটে যাচ্ছে। আর আমার মা সম্প্রতি আমাকে একটি নতুন গাড়ি কিনে দিয়েছেন। গাড়িটি খুবই সুন্দর। আবার কবে বাংলাদেশে ফিরবেন জানতে চাইলে এই পর্দাকন্যা বলেন, ঢাকাতে তো এখন ডেঙ্গু আতঙ্ক বিরাজ করছে। এই মুহূর্তে ছেলেকে নিয়ে যেতে চাই না। ডিসেম্বরে অর্থাৎ শীতের সময় ঢাকায় যাওয়ার ইচ্ছে আছে আমার। আমি ঢাকার বিরিয়ানি, বার্গার, গাছের তাজা ফলমূল খেতে খুবই পছন্দ করি। অস্ট্রেলিয়াতে আসার পর এসব খাবার খুব মিস করি। শাবনূরের প্রথম চলচ্চিত্র ‘চাঁদনী রাতে’ ১৯৯৩ সালে মুক্তি পায়। ছবিটি পরিচালনা করেন এহতেশাম এবং তার বিপরীতে নায়ক ছিলেন সাব্বির। এরইমধ্যে নিজের ক্যারিয়ারের ২৬ বছর পূরণ করতে যাচ্ছেন শাবনূর। সবশেষ মোস্তাফিজুর রহমান মানিক পরিচালিত ‘এত প্রেম এত মায়া’ ছবিতে অভিনয় করেন এ অভিনেত্রী। ছবিটিতে একটি গানও গেয়েছেন তিনি। এদিকে আবার কবে কাজ শুরু করবেন জানতে চাইলে শাবনূর বলেন, জানি না। তবে যেকোনো সময়ই দেশে এসে কাজ শুরু করতে পারি। অনেকটা ফিট হয়েই দর্শকদের সামনে ফিরতে চাই। আর ফিট হতে তো সময় লাগবে। কারণ চাইলেই তো হঠাৎ করে ওজন কমানো বা শুকানো সম্ভব না। ফিট হওয়ার জন্য আরো সময় প্রয়োজন আমার। তবে হ্যাঁ, ভালো কিছু কাজ করার ইচ্ছে আমার আছে। বর্তমান সময়ের নায়ক-নায়িকাদের সিনেমা দেখেন শাবনূর। দেশে এসে গতবার সিনেমা হলেও দেখা গিয়েছে তাকে। এ প্রসঙ্গে এই তারকা বলেন, আমি দেশে গেলে সিনেমা দেখা হয়। এই যেমন জয়া আহসান, সিয়াম, পূজার অভিনীত ছবিগুলো দেখা হয়েছে আমার। এগুলো দেখে খুব ভালো লেগেছে। ভালো কাজ হচ্ছে এখন। তরুণ মেধাবী নির্মাতার পাশাপাশি ফিল্মে এখন ভালো শিল্পীরাও আসছে। তারা প্রত্যেকেই ভালো করছে। তবে ছবির প্রচারণায় বেশি সময় দিতে হবে প্রযোজকদের। শাবনূর এ প্রসঙ্গে আরো বলেন, আমাদের সময়ে নতুন একজন নায়ক-নায়িকা এলে কাজের চেয়ে বেশি ছিল প্রচার-প্রচারণা। কারণ গ্রাম বাংলার দর্শকের কাছে না পৌঁছাতে পারলে সিনেমা হিট হয় না। তাই প্রচারণার মাধ্যমে নতুনদের আগে গ্রাম বাংলার দর্শকদের কাছে পরিচিত করে তুলতে হবে নির্মাতা ও প্রযোজকদের। এটা খুবই জরুরি বলে মনে করি আমি।

Leave a Comment